1. dssangbad1@gmail.com : dss :
  2. admin@news.eswadhinsangbad.com : admin :
অ্যাম্বুলেন্সের ড্রাইভার মোস্তফার ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে - দৈনিক স্বাধীন সংবাদ
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৪:৫৭ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনামঃ
ডেমরায় আবাসিক হোটেল থেকে অসামাজিক কাজের অভিযোগে গ্রেপ্তার ১১ গণতন্ত্র ও মানবাধিকার ইস্যু সুশীল সমাজের সঙ্গে সরকারকে যুক্ত থাকার আহ্বান যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যম নিয়ন্ত্রণ সরকারের উদ্দেশ্য নয় : আইনমন্ত্রী গলায় দড়ি দিলেন মা ছেলে-মেয়েকে বিষ খাইয়ে ঢাকা জেলার ধামরাই এলাকা হতে ৯৮০ গ্রাম হেরোইনসহ ০১ জন মাদক কারবারি’কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪ আশুলিয়ায় চোর সন্দেহে এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা,গ্রেফতার-২ মুরাদনগর উপজেলার ২নং আকুবপুর ইউনিয়নের উদ্যোগে আওয়ামী লীগের ২ নেতার স্মরণ সভা  বাকেরগঞ্জে মহান শহীদদিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ভাষা শহীদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন লক্ষীপুর জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন সভাপতি জসিম সম্পাদক বিপ্লব অদ্বৈত মল্লবর্মণ সাহিত্য পুরস্কার প্রদানের মাধ্যমে শেষ হলো তিন দিনব্যাপী ২য় অদ্বৈত গ্রন্থমেলা ২০২৪

অ্যাম্বুলেন্সের ড্রাইভার মোস্তফার ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে

মামুন মিঞা
  • প্রকাশিত : বুধবার, ১১ অক্টোবর, ২০২৩
  • ২১ জন দেখেছে

ফরিদপুরের বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের সরকারি অ্যাম্বুলেন্সের ড্রাইভার মোস্তফার ব্যপক অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বিশ্বস্ত সুত্রে জানাজায় ফরিদপুরে ড্রাইভার হিসাবে কর্মজীবন শুরু করার পর থেকেই দূর্নীতি ও অনিয়ম করে আসছে।  সরকারি  অ্যাম্বুলেন্সের ড্রাইভার মোস্তফা পেট্রোল চালিত গাড়ীকে পূর্বের পরিচালক সি এন জি গ্যাসে রুপান্তর করে।মোস্তফা  নিজের মনগড়া খেয়াল খুশি মতো সিএনজি গ্যাসের গাড়িটিকে  এল পি জি গ্যাসে রুপান্তরিত করেছে সম্পূর্ণ নিজের খরচে। গাড়িটির নাম্বার ।দীর্ঘদিন যাবত এল পি জি  গ্যাস জ্বালানি  ব্যবহার করে আসছে।অথচ বিল তোলা হয় পেট্রোলের দামে।ফরিদপুর থেকে ঢাকা যাইতে সর্বোচ্চ ১হাজার টাকার এল পি জি গ্যাসই যথেষ্ট।সেখানে পেট্রোল বিল তোলা হচ্ছে প্রায় ৭২০০ টাকা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় গাড়িটি এল পি জি গ্যাসে রুপান্তর করা হয়েছে। মুঠো ফোনে ড্রাইভার মোস্তফাকে ডেকে আনা হয়।সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন আগের পরিচালক গাড়ি দুটি এল পি জি অবস্থায় কিনেছে। তিনি আরও বলেন গ্যাস সিলিন্ডার থাকলেও আমরা পেট্রোল জ্বালানি হিসাবে ব্যবহার করি।তাকে গাড়ি চালু করতে বলা হলে বিভিন্ন টালবাহানা করতে থাকে ড্রাইভার মোস্তফা।ড্রাইভার মোস্তফা কোন কিছু তোয়াক্কা করে না,এমনকি সাংবাদিকদের সঙ্গে ও ভালো ভাবে কথা বলতে নারাজ।মোস্তফার খুটির জোরই-বা কোথায়?

মোস্তফা বলেন

এ বিষয়ে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ মহা  এনামুল হক   এর সংগে কথা বলেন।পরিচালকের কাছে  জানতে চাইলে তিনি বলেন এ বিষয় আমার কিছু জানা নেই। তবে সিএনজি বিষয়টা আমার জানা।এলপিজি গ্যাসের ব্যপারে আমার কিছু জানা নেই, জেনেই আমি বলতে পারবো।

এখানেই শেষ নয় এই ড্রাইভার  মোস্তফা ফরিদপুর থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে  স্থানন্তর রোগীর বেলায় পরিবহন ফি নিয়ে থাকে ৬৫০০(ছয় হাজার পাঁচ শত)টাকা। এ বিষয় কথা বললে এটা কর্তৃপক্ষের ধার্যকৃত টাকা।বর্তমানে তিনি ড্রাইভার ইনচার্জ হিসাবে দায়িত্ব পালন করে আসছে।

সংবাদ টি শেয়ার করে সহযোগীতা করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ
Design & Developed by REHOST BD