1. dssangbad1@gmail.com : dss :
  2. admin@news.eswadhinsangbad.com : admin :
৮৩তম বারের মতো সময় পেলেন তদন্ত কর্মকর্তা - দৈনিক স্বাধীন সংবাদ
বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:৪০ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনামঃ
চট্টগ্রামে জাসাস’র বিভাগীয় কমিটির উদ্যোগে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন  র‌্যাব-১০ এর একাধিক অভিযানে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী ও কেরাণীগঞ্জ এলাকা হতে টপবাজ, গ্যাং স্টার প্যারাডাইস, বয়েস হাই ভোল্টেজ, দে-দৌড়, হ্যাচকা টান ও বুস্টার গ্রুপসহ বিভিন্ন কিশোর গ্যাং গ্রুপের ৫০ জন গ্রেফতার ভাষা শহীদদের প্রতি আমতলী সাংবাদিক ফোরামের শ্রদ্ধা নিবেদন লক্ষীপুরে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে পুলিশ সুপারের শ্রদ্ধা নিবেদন নোয়াখালী চৌমুহনীতে টেকনাফের এক ব্যক্তি অপহরণ মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে হ্যাপি জেনারেল হাসপাতালে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প ব্রাহ্মবাড়িয়া ৩ দিনব্যাপী দ্বিতীয় অদ্বৈত গ্রন্থমেলা-২০২৪ শুরু নবযুগ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ আয়োজনে সাংসদ সদস্যকে সংবর্ধনা ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতা পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত নরসিংদীতে মক্তব থেকে ফেরার পথে শিশুকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেপ্তার

৮৩তম বারের মতো সময় পেলেন তদন্ত কর্মকর্তা

প্রথম নিউজ ডেস্ক
  • প্রকাশিত : বুধবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২১
  • ১৫৩ জন দেখেছে

দশ বছরেও তদন্ত শেষ হয়নি

সাংবাদিক দম্পতি সাগর সরওয়ার ও মেহেরুন রুনি হত্যা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন গত দশ বছরেও জমা দিতে পারেননি তদন্ত কর্মকর্তা। বুধবার (২৪ নভেম্বর) তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তদন্ত কর্মকর্তা প্রতিবেদন দাখিল না করে আবার সময় চান। ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দেবদাস চন্দ্র অধিকারী যথাসময়ে আবেদন মঞ্জুর করেন এবং প্রতিবেদন দাখিলের নতুন তারিখ ২৬ ডিসেম্বর ধার্য করেন। এ নিয়ে তদন্ত কর্মকর্তা সময় পেয়েছেন ৮৩ বার।

গত বছরের মার্চে সাগর-রুনি হত্যা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা হাইকোর্টে বলেন, অগ্রগতি প্রতিবেদনে অজ্ঞাতপরিচয় দুই ব্যক্তি জড়িত ছিল। সাগরের হাত বাঁধা চাদর ও রুনির টি-শার্ট মিলেছে দুজনের ডিএনএ প্রমাণ। অপরাধীদের শনাক্ত করার জন্য যে দুটি ইউএস ল্যাব ডিএনএ রিপোর্ট তৈরি করেছে তারা বর্তমানে যথাক্রমে ইন্ডিপেন্ডেন্ট ফরেনসিক সার্ভিস এবং প্যারাবন স্ন্যাপশট ল্যাবসের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করছে। ডিএনএর মাধ্যমে অপরাধীর ছবি বা ফিগার তৈরির কাজ করছে প্রতিষ্ঠান দুটি।

২০১২ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি রাতে মাছরাঙা টেলিভিশনের বার্তা সম্পাদক সাগর সরওয়ার এবং এটিএন বাংলার সিনিয়র রিপোর্টার মেহেরুন রুনিকে ঢাকার পশ্চিম রাজাবাজারে তাদের ভাড়া বাসায় নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। পরদিন সকালে তাদের বিকৃত লাশ উদ্ধার করা হয়। ওই বছরের ১২ ফেব্রুয়ারি রুনির ভাই নওশের আলী রোমান বাদী হয়ে শেরেবাংলা নগর থানায় মামলা করেন। মামলাটি প্রথমে শেরেবাংলা নগর থানার একজন কর্মকর্তা তদন্ত করেন। পরে তদন্তের দায়িত্ব পড়ে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) ওপর। এর দুই মাস পর র্যা বকে মামলাটি তদন্তের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।

এরপর ৯ বছরের বেশি সময় পেরিয়ে গেলেও এখনো তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে পারেননি তদন্ত কর্মকর্তা। এদিকে তদন্ত প্রতিবেদনের অপেক্ষায় সাংবাদিক সমাজ ও নিহতের স্বজনরা। তদন্ত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে চাঞ্চল্যকর এই হত্যা মামলার বিচার শুরু হতে পারে বলে মনে করছেন তারা।

সংবাদ টি শেয়ার করে সহযোগীতা করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ
Design & Developed by REHOST BD