1. dssangbad1@gmail.com : dss :
  2. admin@news.eswadhinsangbad.com : admin :
করোনার ৫ম ঢেউয়ের কবলে ফ্রান্স - দৈনিক স্বাধীন সংবাদ
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৫:০৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনামঃ
ডেমরায় আবাসিক হোটেল থেকে অসামাজিক কাজের অভিযোগে গ্রেপ্তার ১১ গণতন্ত্র ও মানবাধিকার ইস্যু সুশীল সমাজের সঙ্গে সরকারকে যুক্ত থাকার আহ্বান যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যম নিয়ন্ত্রণ সরকারের উদ্দেশ্য নয় : আইনমন্ত্রী গলায় দড়ি দিলেন মা ছেলে-মেয়েকে বিষ খাইয়ে ঢাকা জেলার ধামরাই এলাকা হতে ৯৮০ গ্রাম হেরোইনসহ ০১ জন মাদক কারবারি’কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪ আশুলিয়ায় চোর সন্দেহে এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা,গ্রেফতার-২ মুরাদনগর উপজেলার ২নং আকুবপুর ইউনিয়নের উদ্যোগে আওয়ামী লীগের ২ নেতার স্মরণ সভা  বাকেরগঞ্জে মহান শহীদদিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ভাষা শহীদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন লক্ষীপুর জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন সভাপতি জসিম সম্পাদক বিপ্লব অদ্বৈত মল্লবর্মণ সাহিত্য পুরস্কার প্রদানের মাধ্যমে শেষ হলো তিন দিনব্যাপী ২য় অদ্বৈত গ্রন্থমেলা ২০২৪

করোনার ৫ম ঢেউয়ের কবলে ফ্রান্স

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • প্রকাশিত : রবিবার, ২১ নভেম্বর, ২০২১
  • ২১৬ জন দেখেছে
ছবি-সংগৃহীত

ফ্রান্সে করোনা সংক্রমণের পঞ্চম তরঙ্গ উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে। নতুন দৈনিক সংক্রমণের সংখ্যা আগের সপ্তাহের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ। দ্য হিন্দু এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এক সপ্তাহ আগে ফ্রান্সে করোনা সংক্রমণের দৈনিক গড় ছিল ৯,৪৫৮। গত সাত দিনে সেই সংখ্যা গড়ে ১৭ হাজার ছাড়িয়েছে। দেশটির স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের মতে, এক সপ্তাহে সংক্রমণ ছড়ানোর হার প্রায় ৮১ শতাংশ।

ফরাসি সরকারের মুখপাত্র গ্যাব্রিয়েল আত্তাল বলেছেন, ফ্রান্সে করোনার ৫ম ঢেউ বিদ্যুৎ গতিতে শুরু হয়েছে। গত সাত দিনে, গত তিন সপ্তাহের তুলনায় সংক্রমণের হার তিনগুণ বেশি হয়েছে। সংক্রমণ বৃদ্ধির এই হার ত্বরান্বিত হচ্ছে।

তবে সংক্রমণ ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেলেও দেশের হাসপাতালগুলোতে রোগীর সংখ্যা গত বছরের মতো তেমন ছিল না। ভাইরাসের সবচেয়ে বিপজ্জনক স্ট্রেইনের বিরুদ্ধে অত্যন্ত কার্যকর ভ্যাকসিনের কারণে রোগীদের হাসপাতালে যেতে হবে বলে মনে হয় না।

সপ্তাহের শুরুতে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ৭ হাজার ৯৭৪ জন রোগী চিকিৎসা নিচ্ছেন। এদের মধ্যে ১ হাজার ৩৩৩ জন হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রয়েছেন। এক মাস আগেও রোগীর সংখ্যা ছিল যথাক্রমে ছয় হাজার ও এক হাজার।

গ্যাব্রিয়েল আত্তাল বলছেন, সংক্রমণ নাটকীয়ভাবে বেড়েছে। কিন্তু আমরা এটাও জানি যে ফ্রান্সে আমাদের বিপুল সংখ্যক মানুষ টিকাপ্রাপ্ত। বুস্টার ডোজ দেওয়ার ক্ষেত্রে আমরা আমাদের প্রতিবেশীদের থেকে এগিয়ে বলে মনে হচ্ছে।

সংবাদ টি শেয়ার করে সহযোগীতা করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ
Design & Developed by REHOST BD